বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে টস জিতল দক্ষিণ আফ্রিকা

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি।

দুর্দান্ত ছন্দে থাকা স্বাগতিক ইংল্যান্ডের সামনে টানা জয়ের ধারায় থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা। অলরাউন্ডার নির্ভর স্বাগতিক ইংলিশরা আত্মবিশ্বাসী ঘরের মাঠের সুযোগ নিয়ে প্রত্যাশার প্রমাণ দিতে। জানিয়েছেন থ্রি লায়ন অধিনায়ক ইয়ন মরগান। আর বিশ্বমঞ্চে চোকার খ্যাত দক্ষিণ আফ্রিকাও প্রত্যয়ী শুভ সূচনার।

বর্তমান পারফরম্যান্স আর ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ। স্বাভাবিক ভাবেই এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে ফেভারিট দল ইংলিশরা। সদ্যই পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪-০ তে সিরিজ জিতে জানান দিয়ে রেখেছে নিজেদের যোগ্যতার।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে পরিসংখ্যান পাশে পাচ্ছে না ইংলিশরা। এখন পর্যন্ত খেলা ৫৯ ম্যাচে ২৯টি জয় দক্ষিণ আফ্রিকার আর ২৬টি জিতেছে থ্রি লায়নরা। তবে বর্তমান সময়ে অপ্রতিরোধ্য ক্রিকেট খেলছে ট্রেভর বেলিসের দল।

প্রথম লড়াইয়ে মাঠে নামার আগে দুঃশ্চিন্তা নেই ইংলিশ শিবিরে। প্রস্তুতি ম্যাচে না খেলা অধিনায়ক ইয়ন মর্গান পুরোপুরি ফিট রয়েছেন উদ্বোধনী ম্যাচের জন্য। ইনজুরি সংখ্যায় থাকা মার্ক ওড, ভিন্স আর লিয়াম ডসনও প্রস্তুত মাঠ মাতাতে।

ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মারগান বলেন, দেখুন, বিশ্বকাপ এটা। এখানে বিশ্বের সেরা দলগুলো অংশ নিচ্ছে। আমরা লড়াইয়ে নামার জন্য প্রস্তুত। প্রস্তুতি ম্যাচে মাধ্যমে ক্রিকেটাররা নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে। বড় জয়ে বেড়েছে ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাস। সবাই আসলে মাঠে নামবে উন্মুখ হয়ে আছে। ইনজুরি নিয়ে যে শঙ্কা ছিল তাও কেটে গেছে।

বিশ্বকাপ মঞ্চটা যেন প্রোটিয়াদের জন্য একটা আক্ষেপের নাম। দারুণ ছন্দে থাকা দলটা বরাবরই খেই হারায় বিশ্ব মঞ্চে। এবার অবশ্য ইংল্যান্ডের মতো প্রত্যাশা চাপ কিংবা ফেভারিট তকমা নেই তাদের উপর। তবে আইসিসি র‌্যাংকিংয়ের ৩ নম্বরে থাকা দলটির উপর সবার বড়তি নজর থাকাটাই স্বাভাবিক।

ইনজুরি অবশ্য প্রোটিয়াদের পেস বিভাগের অভিজ্ঞ শক্তি ডেল স্ট্যানকে ছিটকে দিয়েছে প্রথম ম্যাচ থেকে। তবু ভাল একটি শুরু চায় ডুপ্লেসির দল। কারণ সবশেষ দেখায় তাদের জয়টা ৭ উইকেটের।

তিনি বলেন, আবহাওয়া এখানে বড় প্রতিপক্ষ। যতটুকু জানি ম্যাচের দিন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। আর ইংল্যান্ড আক্রমণাত্বক ক্রিকেট খেলছে। সুতরাং কঠিন ম্যাচ হবে নিশ্চয়। তবে আমাদের কঠিন পরীক্ষায় পড়তে হচ্ছে একাদশ নির্বাচনে। দারুণ ছন্দে রয়েছি আমরাও। আশা করি একটা ভাল সূচনা পাবো।

ইংলিশদের দাপট নাকি প্রোটিয়াদের অপরাজেয় থাকা? তা দেখতেই বিশ্বের ক্রিকেট প্রেমীরা চোখ রাখবেন কেনিংটন ওভালে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *