মেয়েকে জোর করে পড়াতে বসিয়ে দরজায় তালা, আগুন লেগে মৃত্যু!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:- বাইরে থেকে তালাবন্ধ করা বাড়িতে আগুন লেগে পুড়ে মৃত্যু হল কিশোরীর। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুম্বাই লাগোয়া শহরতলিতে।

পুলিশের অনুমান, দাদার থানা চত্বরের মধ্যেই পাঁচতলা ওই আবাসনের তিনতলার ফ্ল্যাটে যখন আগুন লাগে, তখন শ্রাবণী চবন নামে ১৬ বছরের ওই কিশোরী সম্ভবত নিজের ঘরে ঘুমাচ্ছিল। শ্রাবণীর বাবা ভাকোলা থানার পুলিশ অফিসার।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার একটি বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন শ্রাবণীর বাবা-মা। শ্রাবণী বাড়িতেই ছিল। চঞ্চল মেয়ে যাতে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে না গিয়ে পড়াশুনা করে সেজন্য সদর দরজা বাইরে থেকে তালা মেরে যান তাঁরা। আগুন লাগার পর, শিখা দেখতে পেয়ে এবং শ্রাবণীর আর্তনাদ শুনে প্রতিবেশীরাই ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন।

দমকলকর্মীরা স্থানীয়দের সহায়তায় তিন ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। গুরুতর অগ্নিদগ্ধ শ্রাবণীকে পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিত্‍সকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রাথমিক তদন্তে তারা জানিয়েছে, শ্রাবণীদের বাড়ির সদর দরজা বাইরে থেকে তালা বন্ধ থাকলেও কিশোরীর ঘর ভিতর থেকে বন্ধ ছিল। তার ঘরের ভিতর একটি ফাঁকা কেরোসিনের জার উদ্ধার হয়েছে। তাই বাড়ির সব বৈদ্যুতিক তার এবং জিনিসপত্র পুড়ে যাওয়ায় প্রাথমিকভাবে তারা শর্ট সার্কিটের কারণেই আগুন লেগেছে বলে মনে করলেও আত্মহত্যার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ। যা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *