পেকুয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এ সময় তিন আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক খোন্দকার হাসান মোহাম্মদ ফিরোজ এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালত-সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে নিজ বাড়ি থেকে অস্ত্রসহ আটক হন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম। ওই মামলায় (যার নম্বর ১৫৮/১৭) দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পরই জাহাঙ্গীর আলমকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মমতাজ উদ্দিন আহমদ এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

চলতি বছরের ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন জাহাঙ্গীর আলম। ওই নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। পাশাপাশি তিনি উপজেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট নিজ বাড়ি থেকে তিনটি অস্ত্র ও ১৭ লাখ টাকাসহ তাকে আটক করে র‍্যাব। ওই অস্ত্র আইনের মামলায় তিনি আদালতে হাজির হলে আদালত তাঁর জামিন নামঞ্জুর করেন। মামলার দীর্ঘ শুনানি ও যুক্তিতর্ক শেষে আজ আদালত তাঁর ১৪ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *