হাটহাজারীতে ক্রেতা সেজে মাংসের দোকানে গেলেন ইউএনও

এবার ক্রেতা সেজে গরুর মাংস কিনতে গেলেন হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমিন। হাটহাজারী বাস স্টেশন এলাকায় দুইটি দোকানে গরুর মাংসের দরদাম করার সময় দোকানি ক্রেতা ভেবেই অন্যদের মত ইউএনওর নিকট দাবী করলেন প্রতি কেজি একদাম ৭০০ লাগবে। আরেক দোকানে গেলে ঐ দোকানি সম্ভবত চিনতে পেরে বললেন আপনাকে ৫০ টাকা সম্মান করব, ৬৫০ একদাম। ইউএনও দোকানিকে বললেন, মূল্য তালিকার সাথে ত মিলছেনা। পরশু আপনারা আমার সাথে মিটিং করে দাম ঠিক করলেন এখন সেটাই মানছেন না।

এসময় চড়া দামে মাংস বিক্রির দায়ে তিনজন মাংস ব্যবসায়ীকে ৩৫০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়েছে বলে জানালেন ইউএনও রুহুল আমিন।

জানা গেছে, রমজান মাসে গরুর কোন সংকট না থাকলেও এভাবে সাধারন ক্রেতাদের নিকট থেকে প্রতি কেজি ৬৫০-৭০০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। এর আগে মাংস ব্যবসায়ীদের সাথে ইউএনওর বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছিল হাটহাজারীতে ৫০০-৫৯০ টাকার ভিতরেই গরুর মাংস বিক্রি করা হবে। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত মানছেনা মাংস বিক্রেতারা। রমজান মাসে অতিরিক্ত মুনাফার আশায় চড়াদামে বিক্রি হচ্ছে গরুর মাংস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *