কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

মরদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে দেয়া হয়েছে।

কক্সবাজার শহরে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দু’জন নিহত হয়েছেন। বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটায় সৈকতের ডায়বটিক পয়েন্ট সংলগ্ন ঝাউবন এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে একটি দু’নলা বন্দুক, তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ১০ হাজার পিস ইয়াবা জব্দের দাবি করেছে র‌্যাব।

নিহতদের মধ্যে একজন কক্সবাজার শহরের পশ্চিম বাহারছড়ার আনু প্রধানের পুত্র মুহাম্মদ মাসুম (৩৫)। অপরজনের পরিচয় জানা যায়নি।

র‌্যাব-১৫ রামুর সহকারী পরিচালক এএসপি শাহ আলম জানান, বুধবার দিনগত রাত ২টার দিকে সৈকতের ঝাউবন এলাকা দিয়ে ইয়াবা পাচার হচ্ছে এমন খবরে র‌্যাব-১৫’র টহল দল ডায়বেটিকস পয়েন্টে চেকপোস্ট বসায়। কিছুক্ষণ পর একদল লোক ঝাউবাগানের ভেতর থেকে বের হচ্ছিল। তারা সেখানে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি বর্ষণ শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও গুলি চালায়। ১৫-২০ মিনিট গোলাগুলির পর দুর্বৃত্তরা পিছু হটে।

তখন ঘটনাস্থলে গিয়ে দুজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। এ সময় সেখান থেকে একটি দু’নলা বন্দুক, তিন রাউন্ড কার্তুজ ও ১০ হাজার ইয়াবা পাওয়া যায়। গুলিবিদ্ধদের উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

এএসপি শাহ আলম আরো বলেন, একজনের পকেটে থাকা একটি চিরকুটে তার নাম মাসুম, পিতা আনু প্রধান বলে লেখা রয়েছে। অপরজনের নাম এখনো পাওয়া যায়নি। তার বয়স আনুমানিক ৪০ হবে। মরদেহগুলো কক্সবাজার সদর থানা পুলিশকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. খায়রুজ্জামান তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে দেয়া হয়েছে। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানতে চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় পৃথক মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *